Porn addiction: পর্ণগ্রাফি থেকে মুক্ত পেতে মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞের পরামর্শ কতটা জরুরি?

porn asokti পর্ণগ্রাফি আসক্তি থেকে মুক্ত পেতে মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞের পরামর্শ,পর্ণগ্রাফির চিকিৎসা এবং তা থেকে মুক্তি  পেতে সাইকোথেরাপির ব্যবহার
মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ এর সাহায্যে পর্ণগ্রাফি আসক্তি(porn addiction)  থেকে মুক্ত হওয়া সহজ। 
Health tips by health science 


পর্ণ দেখাটা বর্তমান সময়ে এখন স্বাভাবিক হয়ে গেছে।পর্ণগ্রাফি(pornography) এখন খুবই সহজলভ্য হয়ে গেছে বলে তা দেখার পরিমাণও অনেক বেড়েছে। পর্ণগ্রাফি দেখতে দেখতে একসময় ব্রেনের নিউরোক্যামিকেলের ব্যাপক পরিবর্তন হওয়ার কারণে ব্রেন পর্ণগ্রাফির উদ্দীপনার চরমভাবে আসক্ত হয়ে যায়।

তখন পর্ণ দেখাটা নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয় না। দৈনন্দিন জীবনে কাজে ব্যাঘাত ঘটে, সময় নষ্ট হয়, কাজে মন বসে না, বসলেও মনোযোগ দেয়া যায়,যৌন জীবন ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং আরো কত ক্ষতিই না হয়। 

পরবর্তীতে পর্ণগ্রাফি আসক্তি(porn addiction)  থেকে মুক্ত হওয়ার সিদ্ধান্ত নিলে নানা উপায়ের মাধ্যমে তা বাস্তবায়ন করার চেষ্টা অনেকেই করে থাকে। অনেকে সফলও হয়। 

সঠিক পদ্ধতিতে এগিয়ে গেলে সফল হবেই। তবে বাস্তবতা হচ্ছে পর্ণ আসক্তি থেকে মুক্ত হওয়ার এতো সহজ নয়। গবেষণা বলে প্রায় ৮২ শতাংশই ব্যর্থ হয়। তাই porn আসক্তি হতে মুক্ত হওয়ার জন্য বিশেষজ্ঞ এর পরামর্শ কতটা জরুরি বা প্রয়োজনীয়?


পর্ণগ্রাফি আসক্তি থেকে মুক্ত হওয়ার জন্য বিশেষজ্ঞ এর পরামর্শ কতটা জরুরি? (Importance of counselling from mental health professionals/sexologist/psychologist/psychiatrist to quit porn addiction) explained in bangla 

প্রথমত বুঝতে হবে পর্ণগ্রাফি আপনার জীবনে সমস্যা তৈরি করছে কিনা এবং আপনি পর্ণগ্রাফিতে আসক্ত(porn addiction)  কিনা। পর্ণগ্রাফিতে আসক্ত হলে তা আপনার যৌন জীবন এবং দৈনন্দিন জীবনে নানা কাজে ব্যাঘাত সৃষ্টি করে। 

কখন বুঝবেন আপনি পর্ণে আসক্ত? সহজ ভাবে বললে পর্ণগ্রাফি আপনার দৈনন্দিন জীবনের কাজে ব্যাঘাত ঘটাবে এবং আপনি এটা নিয়ে guilty(দোষী) feel(অনুভব) করবেন এবং বিবাহিত হলে যৌন জীবনকেও ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে। বিস্তারিত জানুন-

পর্ণগ্রাফিতে আসক্ত হওয়ার লক্ষণ


এখন আপনি porn এ আসক্ত হলে যদি এটা সমস্যার কারণ হয়ে দাড়ায় তখন তা থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার জন্য কাজ করতে হয়। যেহেতু ৮২% ই তাতে ব্যর্থ হয় তাই বুঝা প্রয়োজন যে পর্ণগ্রাফি থেকে মুক্ত হওয়ার এতো সহজ নয়। 

কেন আসক্ত হওয়া সহজ নয় তার জন্য ব্রেনের ওপর পর্ণের প্রভাব বুঝতে হবে।

ব্রেনকে ড্রাগের মতোই পর্ণ আসক্ত করে ফেলে তাই নিজ থেকে তা থেকে মুক্ত হওয়া যথেষ্ট কঠিন। মানসিক যন্ত্রণা সহ্য করতে হয় এবং বেশিরভাগ ক্ষেত্রে সম্ভাবনা এই যে পর্ণ ছাড়ার ৪-৭তম দিনে আপনি আবারো পর্ণ দেখবেন। ডোপামিনের লুপ এবং ব্রেনের rewired এই ফাংশনটা আপনার বুঝতে হবে।

পর্ণ দেখার কারণে আপনি অতিরিক্ত ডোপামিন নিয়ে ফেলেছেন এবং ব্রেনের নিউরনগুলো পরবর্তীতে একইভাবে পুনরায় ডোপামিন পেতে চায়। তাই পর্ণ ছাড়া কষ্টকর এবং আপনি পর্ণ ছাড়তে পারেন না।

 অনেকেই ব্যাপারগুলো ঠিকমতো বুঝে না। তার চিন্তাধারা, আর রাগান্বিত আচরণ কিংবা আগ্রাসন, কোনো পরিবেশে বা যৌন সম্পর্কে মানিয়ে নিতে পারায় গন্ডগোল হওয়া ইত্যাদি সমস্যার সাথে পর্ণগ্রাফির সম্পর্ক পুরোপুরি বুঝে না। 


porn asokti পর্ণগ্রাফি আসক্তি থেকে মুক্ত পেতে মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞের পরামর্শ,পর্ণগ্রাফির চিকিৎসা এবং তা থেকে মুক্তি  পেতে সাইকোথেরাপির ব্যবহার
পর্ণ আসক্তি(porn addiction) ড্রাগের মতো আসক্তিপূর্ণ যা ছাড়া অত্যন্ত কষ্টকর।
স্বাস্থ্য পরামর্শ by health science 



ফলে হতাশা, দুশ্চিন্তা ও নিজের ওপর রাগ আরো বাড়ে। এবং এর জন্য আবার বিষণ্ণতা বা depression ও বাড়ে। 

Pornography  যেহেতু তার ব্রেনকে একটি লুপে বন্দি করেছে, তার প্রকৃত কারণগুলো ও তা থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার practical বিষয়াবলি একজন মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ দিতে পারে।

আবার অনেকেই পর্ণগ্রাফির সমস্যার কথা বলতে লজ্জা বোধ করে, সে মনে করে এটা শুধুমাত্র তারই সমস্যা। তাই বলতে কুণ্ঠিত বোধ করে এবং আসক্তই থেকে যায়।


তবে একজন মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ (Mental health professional) একজন ব্যক্তির সমস্যা খুব ভালোভাবে বুঝে এবং তা নিয়েই তিনি পড়াশোনা করেছেন। পর্ণগ্রাফিতে আসক্ত ব্যক্তি তার সমস্যা খুলে বলার সুযোগ পায়, তার সমস্যার প্রকৃত কারণগুলো খুজে পেয়ে তা সমাধানের জন্য চেষ্টা করে এবং সফলও হয়।

physiotherapy, cognitive behavior therapy, counselling ইত্যাদির সাহায্যে আসক্তির সমস্যা বহুলাংশে দূর হয়। 


পর্ণগ্রাফি আসক্তি থেকে মুক্তি পেতে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞের পরামর্শ কি নিবো?(The importance of mental health professionals to get rid of porn addiction) explained in Bangla


এই প্রশ্নের উত্তর নিজ ব্যক্তির ওপরই নির্ভরশীল। এটা বলা যায় যে মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ এর পরামর্শ pornography  আসক্তি থেকে মুক্তি দিতে যথেষ্ট সহায়ক। এবং অনেকেই ভালো ফলাফল পেয়েছে, মুক্তও হয়েছে। 

তবে অনলাইন দুনিয়ায় ইনফরমেশন এখন হাতের মুঠোয়। তাই পর্ণগ্রাফি আসক্তি সম্পর্কে বিস্তারিত বুঝে এবং আপনার বর্তমান অবস্থা সর্বপ্রথম বুঝা উচিত। তারপর সঠিক পদ্ধতিতে তা থেকে মুক্ত হওয়ার চেষ্টা নিজ থেকে করা প্রয়োজন।

পর্ণগ্রাফি থেকে  মুক্ত হওয়ার ১৬টি উপায়

যদি সর্বোপরি ব্যর্থ হই তাহলে অবশ্যই মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ এর পরামর্শ জরুরি। 

আবার হ্যা, যদি বুঝতে পারেন আপনি পর্ণে আসক্ত এবং নিজ থেকে যদি চেষ্টা করতে না চান তাহলে অবশ্যই বিশেষজ্ঞ এর সাহায্য নিতে পারেন।

বিশেষজ্ঞ এর পরামর্শে পর্ণ আসক্তি(porn addiction)  থেকে মুক্ত হওয়া নিজ থেকে চেষ্টার চেয়ে সহজ। এবং সেখানে গিয়ে practically  বুঝতেও পারবেন যে আপনি একা এই সমস্যার মধ্যে নেই বরং বহু লোক পর্ণগ্রাফিতে আসক্ত। 

ক্ষেত্রে বিশেষ তাদের থেকেও counselling পাবেন। individual counselling, family counselling, group counselling(পরামর্শ) ইত্যাদি ব্যাপার-স্যাপার রয়েছে।

Porn আপনাকে ডোপামিনের লুপে আবদ্ধ করে রাখে এবং তা থেকে পরিত্রাণ পাওয়া নিজ থেকে অত্যন্ত কঠিন।তাই মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ এর পরামর্শ অবশ্যই নেওয়া জরুরি এবং এতে লজ্জা পাওয়ার কিছু নেই। আপনি পর্ণে আসক্ত তা স্বীকার করতেও কোনো লজ্জা নেই কারণ এই আসক্তি দিন দিন বাড়ছেই।

এক্ষেত্রে psychiatrist, psychologist, sexologist ইত্যাদি পেশার লোকদের কাছে যেতে হয়।



পর্ণগ্রাফির চিকিৎসা /মানসিক বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ এবং তাদের থেরাপির কিছু উদাহরণ /কেন মানসিক বিশেষজ্ঞ এর যাওয়া প্রয়োজন(treatment of porn addiction in bangla) 


মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা কিছু পদ্ধতিতে পর্ণগ্রাফির চিকিৎসা করে থাকে। মূলত তারা সাইকোথেরাপি দিয়ে থাকে। এখন সাইকোথেরাপি কি? 

সাইকোথেরাপি হচ্ছে ব্যক্তির মানসিক সমস্যাগুলো খুজে বের করা এবং সমাধানের জন্য বিশেষজ্ঞের সাথে পরামর্শ, আলোচনা এবং কথাবার্তা। 

Porn asokti পর্ণগ্রাফি আসক্তি থেকে মুক্ত পেতে মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞের পরামর্শ,পর্ণগ্রাফির চিকিৎসা এবং তা থেকে মুক্তি  পেতে সাইকোথেরাপির ব্যবহার
সাইকোথেরাপি এবং আলোচনার মাধ্যমে বিশেষজ্ঞরা পর্ণ আসক্তি থেকে মুক্ত হতে আপনাকে সাহায্য করবে। এর জন্য CBT,ACT ইত্যাদি গুরুত্বপূর্ণ 
Mental and sexual health tips by health science 


1. Cognitive behaviour therapy (CBT)

এটি এক প্রকার সাইকোথেরাপি  যেখানে ব্যক্তির দু্শ্চিন্তার প্যাটার্ন খুজে বের করার মধ্য দিয়ে তার ঐ অবাস্তবিক বা ভ্রান্ত চিন্তা-ভাবনার সাথে আচরণের(Behaviour) সম্পর্ক খুজে বের করা হয়। 

এবং সেই সমস্যাগুলো চিহ্নিত করে সমাধানের প্রচেষ্টা করা হয়। 

সহজ ভাষায় ব্যক্তির চিন্তাধারার যে ত্রুটির কারণে সে porn দেখছে এবং অস্বাভাবিক আচরণ তার সমাধান করা হয় এই থেরাপির সাহায্যে।

2. Acceptance and commitment therapy (ACT)

এই থেরাপির ক্ষেত্রে ব্যক্তির ভুল বা অস্বাভাবিক চিন্তার(thoughts) কারণগুলো খুজে বের করা হয় এবং ব্যক্তিকে তার এই সমস্যাকে accept বা স্বীকার করানো হয়। 

যখন আপনি আপনার সমস্যার কথা স্বীকার করবেন তাহলে তা পরিত্রাণ পাওয়া ততই সহজ হয়। ব্যক্তির যেকোনোই সমস্যাই স্বীকার করে সঠিকভাবে তা সমাধানের জন্য অভিগমন(approach) করতে হয়। 

3. Psychodynamic therapy 

এক্ষেত্রে ব্যক্তির অতিমাত্রায় পর্ণ দেখার জন্য যে লুকানো একটা উদ্দীপনা বা উদ্দেশ্য দায়ী(hidden motive) তা খুজে বের করা হয়। 

4.Couples counselling 

পর্ণগ্রাফিতে আসক্তির কারণে যদি যৌন জীবনে সহবাসের আনন্দ থেকে বঞ্চিত হন অথবা সম্পর্কে ফাটল ধরে তাহলে couples counseling এর মাধ্যমে relationship ঠিক করা হয়। couples দের অর্থাৎ স্বামী ও স্ত্রীকে একসাথে counselling করা হয়।

আরো পড়ুন-

পর্ণগ্রাফির উপকারিতা আছে কি?

পর্ণগ্রাফি থেকে মুক্তি পেতে কতদিন সময় লাগে?

পর্ণগ্রাফি ছেড়ে দিলে কি হবে


Post a Comment

0 Comments