সাইনুসাইটিস থেকে মুক্তি পেতে এবং ব্যাথা কমাতে করণীয় বিষয়াবলি!(Sinus Health tips Bangla)

 

sinus er betha theke moktir upay, সাইনাস থেকে মুক্তির উপায়,এর জন্য কি কি করণীয়,প্রতিকার,নাকের সাইনাসের ঔষধ এবং ব্যাথা কমানোর উপায়, সাইনোসাইটিস হলে করণীয় এবং এর মাথা ব্যাথা কমানোর উপায়,
সাইনুসাইটিস(sinusitis) হলে সাইনাসে প্রচন্ড ব্যাথা শুরু হয়। মূলত ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাসের আক্রমণে সাইনাস অবরুদ্ধ হয়ে গেলে এরূপ হয়ে থাকে।
স্বাস্থ্য পরামর্শ By health science 

সাইনাস(sinus) বলতে মানুষের মুখমণ্ডলের ভেতরে অবস্থিত চারটি গহ্বরকে(Cavity) বুঝায় যা স্বাভাবিক অবস্থায় বায়ু দ্বারা পূর্ণ থাকে। এই চারটি গহ্বর মূলত অবস্থিত কপাল, চোখ, গাল ও নাকের অস্থির মাঝে।  


স্বাভাবিক অবস্থায় এই সাইনাস(sinus) বায়ু দ্বারা পূর্ণ থাকে তবে ব্যাকটেরিয়া, ছত্রাক কিংবা ভাইরাসের আক্রমণে সেখানে তরল মিউকাস জমা হলে মুখে প্রদাহ ও মাথা ব্যাথা শুরু হয় যা সাইনুসাইটিস নামে পরিচিত। সাইনুসাইটিস কেন হয় এর কারণ, লক্ষণ ও উপসর্গ ইত্যাদি বিস্তারিত নিচের লিংকে পড়ুন

সাইনুসাইটিস কি, লক্ষণ ও কারণ 

সাইনাস হলে কি কি করণীয় এবং তা থেকে মুক্তির উপায়( measures to take or sinusitis treatement)(explained in bangla) 

  • অবশ্যই বিশ্রামে থাকতে হবে।
  • তরল জাতীয় খাদ্য বেশি গ্রহণ করা। 
  • যেসব খাবারে অ্যালার্জি হয় সেসব খাবার না খাওয়া। নতুবা অবস্থা খারাপ হতে পারে। 
  • মাথা বেশি নাড়াচড়া না করা। 
  • মাথা না ঝুকানো। 
  • ধূমপান না করা। 
  • নাকে ন্যাসাল স্প্রে করা যাতে নাকের ভেতরটা পরিষ্কার হয়।
  • Decongestant ব্যবহার করা। 
  • একজন ডাক্তার বা pharmacist এর পরামর্শ নেয়া। কখন কিভাবে ন্যাসাল স্প্রে দিতে হবে তা একজন prescribe করা ডাক্তারদের পরামর্শ অনুযায়ী নেয়া উচিত। 
কোনো কারণে যদি সমস্যা ১০দিনের মধ্যে না যায় তাহলে ক্ষেত্রবিশেষ ডাক্তার অ্যান্টিবায়োটিক(antibiotics) দিয়ে থাকেন। এছাড়াও ইনট্রান্যাসাল স্টেরয়েড স্প্রে করার পরামর্শও দিতে পারে। বা ওরাল decongestant ও দিতে পারেন  তবে ডাক্তারের পরামর্শ ব্যতীত এসব করতে যাবেন না, এতে হিতে বিপরীত হতে পারে। 

অবস্থা ভয়াবহ বা বেশি জটিল পর্যায়ে গেলে সাইনাস অপারেশনের শরণাপন্ন হওয়া প্রয়োজন

সাইনাসের ব্যাথা কমানোর উপায়(Ways to reduce sinusitis pain in bangla) 


sinus এর ব্যাথা কমানোর জন্য ব্যাথা কমানোর ঔষধ খেতে হবে। সাধারণত প্যারাসিটআমল বা আইবুপ্রোফেন নেয়া যেতে পারে। তবে ১৬ বছরের নিচে কাউকে এসপিরিন জাতীয় ঔষধ দেয়া যাবে না।

সাইনাসের মাথা ব্যাথা কমানোর উপায় (how to reduce sinus headache pain)(explained in bangla) 

মাথা ব্যাথা কমানোর জন্য কিছু ঘরোয়া টেকনিক আছে, তবে সাধারণ কিছু নিয়মও আছে। সাইনুসাইটিস এর মাথাব্যাথার সাথে মুখে যে ব্যাথা আছে তা সম্পর্কিত এবং স্বাভাবিকভাবেই যদি Sinusitis এর ব্যাথা কমানো যায় তাহলেই মাথা ব্যাথা কমানো যাবে।

১. গরম পানি করে সেই গরম পানির বাষ্পে শ্বাস নেয়া, ফলে তা sinus এর প্রদাহ কিছুটা কমিয়ে মাথা ব্যাথা কমাবে। 

২. কোনো পরিষ্কার নরম কাপড় নিকে নাকের ওপর হালকাভাবে ধরে রাখা, এতেও ব্যাথা কমবে। কারণ ভেতরের মিউকাস তখন গলে গিয়ে সরু পথ বা drainage পরিষ্কার হবে। 

৩. ন্যাসাল স্প্রে ব্যবহার করা। 
৪. পানি পান করা অর্থাৎ হাইড্রেটেড থাকা।
৫. decongestant ব্যবহার করা। 
৬. বিশ্রাম নেয়া। 
৭. নিজের পছন্দের গান শোনা  যেতে পারে তাহলে ব্রেন ওদিকে মগ্ন থাকবে, ফলে ব্যাথা থেকে পরিত্রাণ পাওয়া গেলেও যেতে পারে।

নাকের সাইনাসের ঔষধ/সাইনুসাইটিস হলে যে ঔষধ নেয়া যায়(Medication of sinusitis)


ইনফেকশন জটিল আকার ধারণ করলে যদি অ্যান্টিবায়োটিক নিতে হয় তাহলে কোন এন্টিবায়োটিক নিতে হবে তা ব্যক্তিভেদে অবস্থার ওপর নির্ভর করে। নিচে কয়েকটি উদাহরণ দেয়া হলো
"
  • Augmentin (amoxicillin/clavulanate).
  • Amoxicillin.
  • Doxycycline.
  • Levofloxacin.
  • Cefixime.
  • Cefpodoxime.
  • Clindamycin."


sinus er betha theke moktir upay সাইনাসের ঔষধ এবং ব্যাথা কমানোর উপায়,সাইনোসাইটিস হলে করণীয় এবং এর মাথা ব্যাথা কমানোর উপায়,
সাইনাসের ব্যাথা কমানোর উপায় ও প্রতিকার 
সাইনুসাইটিস ছবি by health science 
Health tips of sinusitis


সাইনুসাইটিস এর প্রতিকার(prevention of sinusitis bangla) 

সাইনাসের(sinus) ইনফেকশন যেহেতু ব্যাকটেরিয়া,ছত্রাক বা ভাইরাসের কারণে হয় তাই এটি প্রতিকারের জন্য অবশ্যই স্বাস্থ্যকর পরিবেশে থাকতে হবে। ধূলাবালি ও দূষণপূর্ণ জায়গায় দীর্ঘদিন থাকলে এ সমস্যা হওয়া অস্বাভাবিক নয়। 
তাই ভালো পন্থা হবে যদি মাস্ক ব্যবহার করা হয়। তাহলে কিছুটা দূষণ থেকে রেহাই পাওয়া যাবে। 

হাত পরিষ্কার রাখা ও সাবান দিয়ে ধোয়া, হাতে ময়লা থাকলে তা থেকে ইনফেকশন হতেই পারে। 

ফল-ফলাদি ও শাকসবজি প্রতিনিয়ত খাওয়া যাতে শরীর সুস্থ থাকে এবং প্রতিরক্ষাব্যবস্থা শক্তিশালী হয়। দুর্বল প্রতিরক্ষাব্যবস্থা যাদের তাদের সহজেই ভাইরাস,ব্যাকটেরিয়া আক্রমণ করে ফেলে। তাই সর্বদা শরীর সুস্থ সবল রাখা। 

ধূমপান পরিহার করা। ধূমপান কেন পরিহার করতে হবে তা নিয়ে ব্যাখ্যার তেমন প্রয়োজন নেই। সবারই জানা আছে যে ধূমপান শ্বসনতন্ত্রের বিরাট ক্ষতিসাধন করে এবং শ্বসনতন্ত্রের প্রথম অংশ হচ্ছে নাক। 

বিশেষ দ্রষ্টব্য  : এই আর্টিকেলে যেসব বিষয়ের ব্যাখ্যা ও স্বাস্থ্য পরামর্শ দেয়া হয়েছে তা শুধুই সচেতনতা সৃষ্টি ও প্রত্যেক ব্যক্তির মধ্যে মেডিকেলের বিষয়াবলির ব্যাসিক জ্ঞান ছড়িয়ে দেওয়ার উদ্দেশ্যে নিবেদিত। গুগলের কোনো ব্যাখ্যা বা যেকোনো আর্টিকেল থেকে পড়া বা ফেসবুকের কোনো পোস্ট থেকে কোনো কিছু জেনে নিজের স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নেয়াটা সমীচীন নয়। 

গুগলের মাধ্যমে কোনো কিছুর সিদ্ধান্ত নেয়াটা নিছুক বোকামি। আমাদের Health science এর আর্টিকেল স্বাস্থ্য সচেতনতা ও বিভিন্ন বিষয়াবলি সম্পর্কে জ্ঞান প্রচার করে। কোনো সিদ্ধান্ত দেয় না যে এটাই করতে হবে। 

বাস্তবে একজন রোগীর অবস্থা অনুযায়ী ঐ মুহূর্তে যে ডাক্তার তার চিকিৎসা করে থাকে সেই সিদ্ধান্ত নেবে এবং সে অনুযায়ী ডাক্তারের পরামর্শ মেনে নেওয়াটাই উচিত বা যথার্থ। তা অনেকসময় হয়তো আর্টিকেলের কিছু বিষয়াবলির সাথে না মিলতে পারে।  কারণ Health science এর আর্টিকেল স্বাস্থ্য সচেতনতা সৃষ্টি করে এবং সম্ভাব্য সকল অবস্থা ও পরিণতির দিকগুলো তুলে ধরে জ্ঞান বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে। কোনো রোগীর নির্দিষ্ট(particular) অবস্থা ব্যাখ্যা করা বা তার situation বুঝা Health Science এর উদ্দেশ্য নয়।


Post a Comment

0 Comments