পর্ণগ্রাফির আসক্তি যেভাবে যৌনজীবনকে ক্ষতিগ্রস্ত করে!(porn addiction)

 পর্ণগ্রাফি আসক্তি(pornography addiction)  বর্তমান পর্যায়ে এক মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। বর্তমান সময়ে পৃথিবীর দক্ষিণ মেরুতে বসে একজন দক্ষিণ মেরু থেকে উত্তর মেরু পর্যন্ত সকল মেয়ের/ছেলের অশ্লীল ছবি ঘরে বসেই খুবই সহজে দেখতে পারে। এরকম নগ্নময় অশ্লীল যুগ আগে কখনোই ছিল না। 

সমাজে বিয়ে কঠিন করে ফেলা ও অশ্লীল ভিডিও ও ছবি অহরহ ছড়িয়ে পড়ার কারণে একজন যুবক/যুবতী সহজেই পর্ণগ্রাফিতে আসক্ত হচ্ছেন। 

এবং আশেপাশের সমাজ ও সোশাল মিডিয়া এবং মুভিতে ব্যাপারগুলো স্বাভাবিক ভাবেই সকলের সামনে উপস্থাপন করে বলে এগুলো এখন আমাদের কাছে স্বাভাবিক হয়ে গেছে। তবে এসবের যে ভয়াবহ ক্ষতি আছে তা সম্পর্কে আমরা অবগত নই। দীর্ঘদিনের পর্ণ দেখাতে হতে পারে যৌনজীবন সুখহীন ও হতে পারে বিবাহবিচ্ছেদও। 


porn asokti, addiction  পর্ণগ্রাফির আসক্তি যেভাবে বিয়ের পর যৌনজীবনকে ক্ষতিগ্রস্ত করে পর্ণগ্রাফি মানে কি এবং এর ক্ষতিকর দিক,পর্ণগ্রাফির উপকারিতা ,পর্ণগ্রাফি আসক্তি কি এবং তা থেকে মুক্তির উপায়,পর্ণ দেখলে কি হয় ও পর্ণগ্রাফির অপকারিতা
পর্ণগ্রাফি(pornography হচ্ছে অশ্লীল ছবি বা নগ্ন ছবি যা আসক্তির জন্ম দেয়। এর অপকারিতা অনেক।দীর্ঘদিনের আসক্তি যৌন সম্পর্কের ব্যাপক ক্ষতিসাধন করে। ডোপামিন নি:সরণের কারণে এক লুপে পড়ে যেতে হয়।


পর্ণগ্রাফি মানে কি?(what is pornography) 

পর্ণগ্রাফি(pornography)  বলতে নর-নারীর অশ্লীল ছবি বা ভিডিওকে বুঝানো হয় যা একজনের যৌনতাকে উদ্দীপ্ত করে(sex drive)। তবে এই অশ্লীলতার মাত্রা কতটা দৃষ্টিকটু তা ঐ নির্দিষ্ট ছবি বা ভিডিও এর ওপর নির্ভরশীল। 

এই ছবি বা ভিডিওগুলোর বাস্তব কোনো ভিত্তি নেই আসলে। এগুলো শুধু অভিনয় করা হয়। বাস্তবতার সাথে ঐ সব ভিডিতে দেখানো বিষয়বস্তুর কোনো মিল নাই। 

একটা সিনেমায় যেমন দেখানো হয় একজন নায়ক সবাইকে একাই শেষ করে দেয় যা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই অপার্থিব তেমনি পর্ণ ভিডিওতে দেখানো বিষয়াবলির সাথে বাস্তবে যৌন জীবনের কোনো সম্পর্ক নেই। 

ওখানে শুধু নোংরা কিছু অভিনয় করা হয় টাকা কামানোর উদ্দেশ্যে যার সাথে স্বাভাবিক স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে যে সম্পর্ক থাকে তার বাস্তবিক মিল নেই এবং এটাই মূলত মূল সমস্যা। পর্ণ দেখার মাধ্যমে একজন অবাস্তবিক একটা fantasy ময় (কাল্পনিক) যৌন জীবন নিয়ে ভাবে যা দীর্ঘ সময় পর(long term এ) একজনকে মারাত্মকবাবে ক্ষতি করে। 

নিজের যৌন স্বাস্থ্য সুস্থ রাখার জন্য এই সম্পর্কে জানা অত্যন্ত প্রয়োজন। 


পর্ণগ্রাফির আসক্তি কি? কেন ক্ষতিকর?(What is porn addiction and why it is harmful) explained in bangla 

ইতোমধ্যে বলা যে পর্ণগ্রাফিতে আপনি শুধুমাত্র অভিনয় করা কিছু নোংরা ভিডিও দেখেন যার সাথে বাস্তবতার মিল নাই। এখন যখনই এই পর্ণ ভিডিও দেখা হয় তখনই ডোপামিন নি:সৃত হয় যা আনন্দ দেয়। 

এখন এই ডোপামিন নি:সৃত হওয়ার ফলে ব্রেনের নিউরন আলোড়িত হয় ও এমনভাবে নিউরনগুলো motivate হয় যাতে পরবর্তীতে আবার এই ডোপামিন পাওয়ার জন্য তা একটা আকর্ষণ অনুভব করে। 

অন্য ভাষায় ডোপামিন নি:সৃত হলে আপনি আবারও ডোপামিন পাওয়ার জন্য একটা আকর্ষণ অনুভব করবেন। অর্থাৎ Dopamin rewires the brain। 

এখন যত পর্ণ একজন দেখে ততই ডোপামিন নি:সৃত হয়, এবং তখন অর্গাজম হলে আরো ডোপামিন নি:সৃত হয়। এরপর ব্রেন আবার পরবর্তীতে একইভাবে ডোপামিনের জন্য আকর্ষণ অনুভব করে। ফলে আবারও পর্ণ দেখা হবে এবং এভাবেই আসক্তি জন্ম নেয়। 

অর্থাৎ ডোপামিনের লুপে সে ফেসে যায় এবং এটা তখন সে আনন্দের জন্য দেখে না বরং এটা তার একটি প্রয়োজনীয় বিষয় হয়ে দাড়ায়। এটা তার প্রয়োজন বলে সে দেখতে বাধ্য হয়। সে তা কন্ট্রোল করতে পারে না। এভাবে দীর্ঘ কয়েক বছর আসক্তি চলতে থাকে। অনেকটা ড্রাগের মতো আপনাকে আসক্ত করে ফেলে।


porn asokti, addiction  পর্ণগ্রাফির আসক্তি যেভাবে বিয়ের পর যৌনজীবনকে ক্ষতিগ্রস্ত করে পর্ণগ্রাফি মানে কি এবং এর ক্ষতিকর দিক,পর্ণগ্রাফির উপকারিতা ,পর্ণগ্রাফি আসক্তি কি এবং তা থেকে মুক্তির উপায়,পর্ণ দেখলে কি হয় ও পর্ণগ্রাফির অপকারিতা
পর্ণ আসক্তির লুপের বহিঃপ্রকাশ 



পর্ণগ্রাফি কিভাবে যৌন জীবনকে ক্ষতিগ্রস্ত করে?(How pornography harm the sex life)

এখন আপনি এমন একটা বিষয় দেখে ডোপামিন নি:সৃত করছেন যার সাথে বাস্তবে মিল নেই। পরবর্তীতে বিয়ে হওয়ার পর আপনি ঐ নোংরা ভিডিও এর অভিনয় গুলো বাস্তবে আপনার স্ত্রীর সাথে করতে চাইবেন কারণ আপনার ব্রেন সেভাবেই Condition করা। আপনি দীর্ঘসময় ধরে আপনার ব্রেনকে বুঝিয়ে আসছেন যে অশ্লীল ছবিই ডোপামিনের উৎস বা মজা। 

সহজভাবে বলতে দীর্ঘদিনের পর্ণআসক্তি(porn addiction)  আপনাকে ঐ পর্ণের মতো করেই অর্গাজম ও যৌনতা শেখায় বা সেভাবেই আপনার ব্রেন আনন্দ পায়। এর বাইরে আপনার ব্রেন চিন্তা করতে পারে না, সেভাবেই conditioned। 

কিন্তু তা আপনি আপনার স্ত্রীর সাথে try করতে গেলে তা অবশ্যই একটি অবাস্তবিক চিন্তা হবে। স্ত্রী অনেকটা নীরবে হাউ-মাউ করে কাদবে। কারণ সেটা অবাস্তব। কোনো সুস্থ যৌন সম্পর্ক নয়। ফলে এখানেই misunderstanding টা হবে। 

আপনি স্বাভাবিক যৌন সম্পর্কে আনন্দও পাবেন না কারণ ঐ নোংরা ছবি দেখে আপনি অভ্যস্ত। সুস্থ স্বাভাবিক যৌনতা আপনার পছন্দ হবে না। আপনার স্ত্রীকে আপনার attractive মনে হবে না বরং ঐ ছবি আর ভিডিওগুলোই আপনার ভালো লাগবে যা স্বাভাবিক যৌন সম্পর্ক ধ্বংস করবে। 

এছাড়াও পর্ণ আসক্তি আপনার স্বাভাবিক দৈনন্দিন কাজকর্মে ব্যাঘাত ঘটাবে। আপনি guilty অনুভব করতে পারেন। 

তবে এক্ষেত্রে এই article এ পর্ণগ্রাফির কথা বলা হচ্ছে, হস্তমৈথুন বা মাস্টারবেশন নয়। যদিও বেশিরভাগ ক্ষেত্রে মাস্টারবেশনের সাথে পর্ণগ্রাফি জড়িত থাকে, তবে শুধুমাত্র মাস্টারবেশন করা হলে তা  বৈবাহিক সম্পর্কে ফাটল ধরায় না। তবে হ্যা যেকোনো আসক্তিই(addiction) ক্ষতিকর।


 হস্তমৈথুনের আসক্তিও ক্ষতিকর তবে বিশেষ case ছাড়া তা বৈবাহিক সম্পর্কে ফাটল ঘরায় না। আসলে ব্রেনকে কোনো অবাস্তবিক যৌনতায় যদি আসক্ত করে ফেলেন তাহলেই সমস্যা, পর্ণগ্রাফি ব্যতীত শুধুমাত্র মাস্টাটবেশন scientifically ক্ষতি করে না যদি নির্দিষ্ট পরিমাণে করা হয়।


তবে কিছু ক্ষতিকর দিক আছে, অবশ্য সমাজের ৮০-৯০ নারী-পুরুষ মাস্টারবেশন বা হস্তমৈথুন করে থাকে, তাই মাস্টারবেশন করার পর নিজের ওপর guilty অনুভব হওয়া উচিত নয়। 

আপনি আপনাকে মাস্টারবেশন করতে বলছি না বরং সমাজের বাস্তবতা বলছি। তবে এ থেকে বিরত থাকতে পারলে ভালো। আর হ্যা আসক্তি অবশ্যই খারাপ। কোনো কিছুতে আসক্ত হলেই ঝামেলা। 


এখন মূল পর্ণগ্রাফির(pornography addiction)  আসক্তির আলোচনায় আসা যাক। পর্ণগ্রাফির মাধ্যমে premature ejaculation, erectile dysfunction এবং delayed ejaculation  ইত্যাদি সমস্যা ছেলেদের বেশি হয়ে থাকে যা মূলত যৌন সম্পর্ক ক্ষতিগ্রস্ত করে। 

এটা যেমন ছেলেদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য, মেয়েদের ক্ষেত্রেও তেমনি প্রযোজ্য। দুর্ভাগ্যজনিত কারণে সত্য এই যে মেয়েরাও এই যুগে পর্ণে বা এই সংক্রান্ত সমস্যায় যথেষ্ট ভুগে থাকে। 

porn asokti, addiction  পর্ণগ্রাফির আসক্তি যেভাবে বিয়ের পর যৌনজীবনকে ক্ষতিগ্রস্ত করে পর্ণগ্রাফি মানে কি এবং এর ক্ষতিকর দিক,পর্ণগ্রাফির উপকারিতা ,পর্ণগ্রাফি আসক্তি কি এবং তা থেকে মুক্তির উপায়,পর্ণ দেখলে কি হয় ও পর্ণগ্রাফির অপকারিতা
পর্ণগ্রাফির আসক্তির পরিণতি ভয়াবহ ও এর ক্ষতিকর বলে শেষ করা যাবে না




পর্ণ হচ্ছে একটি ড্রাগ(pornography a drug)


পর্ণ আসক্তি(porn addiction)  হবুহ ড্রাগ আসক্তির মতো। পৃথিবীতে যতো ভয়াবহ ড্রাগ আছে তার মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ হচ্ছে পর্ণ ভিডিও(porn video)।এটি ব্রেনের পরিবর্তন ঘটায়। Health Institute of cancer research ইদুরের ওপর ড্রাগ পরীক্ষা করে দেখেছে যে যতো আসক্তিপূর্ণ ড্রাগ ততো বেশি ডোপামিন ক্ষরণ হয় ও ততই আসক্তি সৃষ্টি করে। 

পর্ণের সাথে এর সম্পর্ক হলো পর্ণ দেখার সময়ও এই ডোপামিন নি:সৃত হয় এবং যতো পর্ণ দেখা হবে তত ডোপামিন ও তত আসক্তি যা সম্পূর্ণ ড্রাগ আসক্তির মতো। 


পর্ণগ্রাফির উপকারিতা (benefits of pornography) 

পর্ণ দেখলে যেহেতু ডোপামিন নি:সৃত হয় তাই প্রথমে আনন্দ লাগে। কিছুটা মানসিক চাপ কমে। এই দুর্বিষহ জীবনের কষ্ট থেকে সাময়িক সময়ের জন্য পরিত্রাণ মিলে। স্ট্রেস(stress) কমে বা স্ট্রেস হরমোন কমে যায়। কিছু সময়ের যৌন তৃপ্তিও পাওয়া যায়। 

তবে নিশ্চয়ই বুঝে যাওয়ার কথা এসব সাময়িক আনন্দ। এটা পরবর্তী জীবনে long term এ আপনার চরম ক্ষতি করছে আসলে। 

পর্ণগ্রাফির স্বাস্থ্যকর কোনো উপকারিতা  আছে কিনা তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা

আসলে গাজারও তো উপকারিতা আছে। গুগলে সার্চ দিলে এর উপকারিতা পেয়ে যাবেন। তবে গাজা যে সার্বিকভাবে কতটা ক্ষতি করে বা এরকম ড্রাগ যেমন ক্ষতি করে তা তো সবারই জানা। 

ড্রাগ খেলে প্রথমে ভালো লাগে তেমনি পর্ণ দেখলেও। এসব আসলে কোনো উপকারিতা নয় বরং উপকারিতার নামে ভবিষ্যতে চরম ক্ষতি করা। 

তেমনি গুগলে সার্চ দিয়ে পর্ণের উপকারিতা দেখে নিজের একটা আসক্তি বা দোষ ঢেকে কোনো লাভ নেই। এর ভয়াবহতা আজ অনেক বেড়ে গেছে। বর্তমানে psychiatrist ও psychologist এর রোগী অনেক বেড়ে গেছে। তাই সর্তকতা জরুরি। 


পর্ণগ্রাফি থেকে মুক্তির উপায় (how to get rid of porn)

এই সমস্যা যেহেতু এখন প্রকট আকার ধারণ করেছে তাই এ থেকে মুক্ত হওয়ারও বহু উপায় আছে। বর্তমানে sexologist  ও psychiatrist এর কাছে যেতে পারেন। তারা professional চিকিৎসা প্রদান করে থাকে। 

নিজে থেকেও অনেকে এ থেকে পরিত্রাণ পেতে পারেন। এক্ষেত্রে ব্রেনের use it or lose it পদ্ধতি ব্যবহার করতে হবে যদিও এটা করাটা এতো সহজ নয়। 

পর্ণগ্রাফি থেকে মুক্ত হতে কত সময় লাগে

ব্রেনের use it or lose it পদ্ধতিটি হলো এমন যে দেহের কোনো অংশ ব্যবহার হতে থাকলে বা ব্রেন কিছুতে অভ্যস্ত থাকলে ঐ কাজটি স্বাভাবিকভাবেই আবার পরবর্তীতে করা হবে। অর্থাৎ ব্রেন কোনো কিছু use করতে থাকলে তা আবারও ব্যবহার করবে। 

porn asokti, addiction  পর্ণগ্রাফির আসক্তি যেভাবে বিয়ের পর যৌনজীবনকে ক্ষতিগ্রস্ত করে পর্ণগ্রাফি মানে কি এবং এর ক্ষতিকর দিক,পর্ণগ্রাফির উপকারিতা ,পর্ণগ্রাফি আসক্তি কি এবং তা থেকে মুক্তির উপায়,পর্ণ দেখলে কি হয় ও পর্ণগ্রাফির অপকারিতা
পর্ণগ্রাফি থেকে মুক্তির একটি উপায় Use it or lose it strategy of the brain যা আসক্তি থেকে মুক্তি দিতে পারে



আর দীর্ঘসময় ধরে যদি শরীরের কোনো কিছু ব্যবহার করা বন্ধ করে দিই বা কোনো কাজ দীর্ঘসময় ধরে না করি তাহলে ব্রেন ঐ কাজ পুনরায় করতে উদ্দীপ্ত হয় না। 

যেমন- অলস হয়ে অনেকক্ষণ বসে থাকলে শরীর কোনো কিছু করার জন্য উদ্দীপ্ত হবে। তবে দীর্ঘ সময় ধরে বসে থাকলে muscle গুলো আর কাজ করতে চাইবে না(lost it effect) 

এভাবেই যদি কষ্ট করে পর্ণ থেকে দীর্ঘসময় ধরে মুক্ত থাকা যায় Mental health professionals দের সাহায্য নিয়ে তাহলে এই পর্ণ আসক্তি থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। 

আরো পড়ুন-


Post a Comment

0 Comments