পর্ণগ্রাফির কি কোনো উপকারিতা আছে যা স্বাস্থ্যকর?(benefits of porn addiction)





 বিশ্বে প্রতিটি সেকেন্ডে প্রায় ৩কোটির মতো লোক porn ভিডিও দেখে থাকে। প্রায় ২.৫বিলিয়ন ইমেইল পর্ণগ্রাফিই। তাই পর্ণগ্রাফি বর্তমান জেনারেশন এর কাছে খুবই সহজলভ্য একটা বিষয় যা যেকেউই একটা ডিভাইস ও ইন্টারনেট থাকলে দেখতে পারে। তাই নিজের মানসিক ও যৌন স্বাস্থ্যের সর্তকতার জন্য পর্ণগ্রাফির কোনো উপকার আছে কিনা তা জেনে নিন।

পর্ণগ্রাফির উপকারিতা কি,পর্ণ দেখার উপকারিতা, porn dekhar ki kono upokarita আছে এবং উপকারী দিকগুলো কি কি,pornography upokarita asokti,
পর্ণগ্রাফির  উপকারিতার বা পর্ণ দেখার কথা বলা হলেও আসলে ভালো দিকের সাথে খারাপ দিক বা অপকারিতা সবসময় মিশ্রিত থাকে। তাই সার্বিকভাবে পর্ণ দেখা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। পর্ণ আসক্তির ভয়াবহতা অনেক। 
 যৌন স্বাস্থ্য ঠিক রাখতে তা পরিহার করুন(Health science)




প্রথম পর্ণ দেখলে ব্রেনের বেশ কিছু পরিবর্তন সাধিত হয়। ব্যাপারটা স্বাভাবিকই ভাবেই বুঝা যায়।কারণ ব্রেন আগে কখনোই যৌন বিষয়ক কোনো উত্তেজক বা আনন্দদায়ক কিছু দেখে নাই। ফলে ব্রেনের নিউরোকেমিক্যালের পরিবর্তন হওয়া স্বাভাবিক।  তবে ধীরে ধীরে পর্ণ দেখতে দেখতে পর্ণ আসক্ত হয়ে যায়। তখন মূলত সমস্যাগুলোর উদ্ভব ঘটে। 

পর্ণ আসক্তি আজ বিশ্বে ভয়াবহ আকারে বৃদ্ধি পেয়েছে এবং তা দৈনন্দিন জীবন থেকে শুরু করে যৌন জীবন(sex life) পর্যন্ত ক্ষতিগ্রস্ত করছেতবে পর্ণগ্রাফি, পর্ণগ্রাফির আসক্তি(porn addiction, এর উপকারিতা ও অপকারিতা সম্পর্কে জানা জরুরি। 


পর্ণগ্রাফি মানে কি?(what is pornography explained in bangla) 

পর্ণগ্রাফি আসক্তির কথা বলতে গেলে পর্ণগ্রাফি মানে কি তা বুঝা দরকার। পর্ণগ্রাফি মানে বলতে আমরা যা বুঝি তা হচ্ছে নগ্ন নারী-পুরুষের যৌনমিলনের ভিডিও বা ছবি যা প্রকৃতপক্ষে অবাস্তবিক(fantasy) ও উগ্র(violence) বা নিকৃষ্ট(obscene) বিষয়াবলি। 

ঐ স্ক্রিনের দৃশ্যাবলি উগ্রতা ও ভুল যৌনতার বিষয়টির প্রকাশ ঘটায় মাত্র। তবে পর্ণগ্রাফি শুধুমাত্র নোংরা ভিডিও বা অশ্লীল ছবি নয় বরং যেকোনো অডিও, ম্যাগাজিনের গল্প বা সাহিত্য, পডকাস্ট বা gif ও পর্ণগ্রাফি হতে পারে। 

পর্ণগ্রাফি আসক্তি কি?(what is porn addiction explained in bangla) 

পর্ণগ্রাফি দেখা ও পর্ণগ্রাফি আসক্তি(porn addiction)  এক বিষয় নয়। কেউ কেউ আছে মাঝে মধ্যে পর্ণ দেখে আবার তা পরবর্তীতে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। অর্থাৎ নির্দিষ্ট সময় পর পর সে পর্ণ না দেখেও থাকতে পারে।

 পর্ণগ্রাফি সে দেখবে নাকি দেখবে না তা তার নিয়ন্ত্রণে থাকে। এবং যদি সে পর্ণ দেখার ইচ্ছা পোষণ করে এবং কোনো অনিবার্য কারণে যদি সে তা দেখতে ব্যর্থ হয় তখন তা দেখার জন্য সে ছটফট করে না বা আকর্ষণ অনুভব করে না। 

কারণ সে আসক্ত নয়। কিন্তু আসক্ত হলে ঐ ব্যক্তি ছটফট করবে।

যেকোনো আসক্তিই তা হোক গেম, ড্রাগ, মাদক সবকিছুর একটা বৈশিষ্ট্য হলো যে ঐ বিষয়টা জীবনের একটা অংশ হয়ে যায়। সে ঐ কাজটা করে কারণ তা করাটা দৈনন্দিন জীবনের একটা অংশ হয়ে যায় এবং তা না করলে অন্যান্য কাজ করতে পারে না। সে আনন্দ পাওয়ার জন্য তা করে না বরং ঐ ভাবে আনন্দ পাওয়াটা তার একটা জৈবিক অংশ হয়ে দাড়ায়।

এখন আমি বলছি না যে পর্ণগ্রাফি নিয়ন্ত্রণে থাকলে তা দেখা উচিত। পর্ণগ্রাফির উপকারিতা/অপকারিতা ও আসক্তির উপকারিতা/অপকারিতা সম্পর্কে নিচেই বলছি।তাই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়ুন।  আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়লে আশা করি সিদ্ধান্ত নিতে সুবিধা হবে। 

আর হ্যা ধর্মীয় ও নৈতিক দৃষ্টিকোণ থেকে পর্ণ দেখা নিষিদ্ধ। এখন পর্ণ আসক্তির ব্যাপারটায় আসি।

 পর্ণগ্রাফি আসক্তিকে(porn addiction)  পর্ণ দেখাটা তার নিয়ন্ত্রণে থাকে না বরং সে দেখতে বাধ্য হয় এবং সেটা তার personal life কে ক্ষতি করে, সময় নষ্ট করায় এবং সে এটা নিয়ে নিজেকে দোষারোপ করে(guilty feel হওয়া) অথবা তার নিজের ওপর রাগ হয়। এমনকি  relationship ও যৌন জীবনেও তা প্রভাব ফেলে। মূলত ব্রেনের ফাংশনের পরিবর্তন হওয়ার কারণে আসক্তির জন্ম। 

পর্ণগ্রাফির উপকারিতা কি,পর্ণ দেখার উপকারিতা, porn dekhar ki kono upokarita আছে এবং উপকারী দিকগুলো কি কি,pornography upokarita asokti,
Pornography তে আসক্ত হলে পর্ণ দেখা জীবনের একটা জৈবিক অংশ হয়ে যায় যা ব্যতীত দৈনন্দিন অন্য কাজে মনোযোগ দেয়া যায় না। যেকোনো আসক্তির ব্যাপারটাই এমন। তাই পর্ণগ্রাফির ভিডিও ও নোংরা ছবি দেখা থেকে বিরত থাকুন।
৷  Health tips by health science

তখন porn কেউ আনন্দের জন্য কেউ দেখবে না বরং নিজের দেখাটা অত্যাবশ্যকীয় হয়ে গেছে বলে সে দেখবে। এটাই পর্ণ আসক্তি। 

কখন বুঝবেন আপনি পর্ণ আসক্ত?

পর্ণ দেখার জন্য নিজের মধ্যে একটি আকুতি কাজ করা, না দেখতে পারা পর্যন্ত ছটফট করা, দেখার জন্য একটা দুনির্বার আকর্ষণ বা compulsiveness থাকা। সর্বোপরি পর্ণের ওপর একটা আবেগময় নির্ভরতা(emotional dependance) তৈরি হয়। 

আসলে যেকোনো ধরনের আসক্তিই আমাদের নিয়ন্ত্রণে থাকে না, বরং আসক্তিই আমাদের নিয়ন্ত্রণ করে যার জন্য আমরা হতাশ ও বিষণ্ণ হই। পর্ণ আসক্তির প্রভাবও তেমনি।


বি: দ্র :porn আসক্তির সাথে হস্তমৈথুন করা বেশিরভাগ ক্ষেত্রে জড়িত থাকলেও মাস্টারবেশনের ব্যাপারটা কিছুটা ভিন্ন। তাই দুটোকে এক করা সব ক্ষেত্রে ঠিক নয়। 


পর্ণগ্রাফির উপকারিতা/পর্ণ দেখার কি কোনো উপকারিতা আছে(benefits of pornography) 

আসলে পর্ণগ্রাফির কিছু কিছু উপকারিতার কথা বলা হয়ে থাকলেও প্রকৃতপক্ষে এর উপকারিতা সাময়িক সময়ের জন্য। পরবর্তীতে এটি দুশ্চিন্তা ও বিষণ্নতার কারণ হয়ে দাড়ায় বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই। 

প্রথমত পর্ণগ্রাফির মাধ্যমে একটা ভ্রান্ত বা কল্পনাময় যৌন(sex) বিষয়াবলি আমরা দেখতে পাই যার সাথে বাস্তবতার সম্পর্ক নাই। এবং বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই মনে করি এটাই প্রকৃত sex। 

যদিও পর্ণগ্রাফির উপকারিতা হিসেবে বলা যায় যে এটা stress কমায়। দীর্ঘসময় কাজ করার পর পর্ণগ্রাফির মাধ্যমে stress কমাতে পারি এবং ডোপামিন নি:সরণ এর মাধ্যমে আনন্দের অনুভূতি নিতে পারি।

এখন গুগলে সার্চ দিয়ে আপনি উপকারিতার কথা পেয়ে যাবেন। তবে এই অশ্লীল ছবি দেখলে যে আপনার ব্রেনের ফ্রন্টাল লোব deactivate(কর্মতৎপরতা হ্রাস) করেতা বলবে না। 

ফ্রন্টাল লোবে থাকা সেরেব্রাম আমাদের ব্রেন sharp বা তীক্ষ্ণ করার কাজ করে। এটা deactivate হলে আমাদের দক্ষতা হ্রাস পায়। 

তাই porn না দেখলে এই frontal lobe সর্বোচ্চ activation পর্যায়ে যেতে পারে যা সফলতার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। 

আবার পর্ণ দেখলে যৌন আনন্দ পাওয়া যায় যা পর্ণগ্রাফির একটি উপকারিতা হিসেবে বলা যেতে পারে, আবারও এর সাথে একটা অপকারিতা হচ্ছে এটা ভুল বা অবাস্তব যৌন ধারণা দিয়ে থাকে যা পরবর্তীতে পর্ণ আসক্তি ও যৌন জীবনকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে। 

Pornography  এর মাধ্যমে ভুল ধারণা পাওয়া গেলেও অনেকে আবার পর্ণ দেখার মাধ্যমে sex করার ধারণা পেয়ে থাকে। যেহেতু sex education অনেক দেশেই দেয়া হয় না, অনেক লোক পর্ণগ্রাফির মাধ্যমে এসব idea পেয়ে থাকে যদিও এটা অভিনয়। 

পর্ণগ্রাফির উপকারিতা কি,পর্ণ দেখার উপকারিতা, porn dekhar ki kono upokarita আছে এবং উপকারী দিকগুলো কি কি,pornography upokarita asokti,
পর্ণগ্রাফিতে বা পর্ণ দেখার তথাকথিত উপকারিতা থাকলেও এটি আসক্তিকে রূপ নেয় এবং যৌন জীবন বা স্বাভাবিক জীবনে এটার খারাপ প্রভাব হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। 
যৌন স্বাস্থ্য ঠিক রাখুন(Health science) 



আবার অনেকেই তাদের fantasy বা কল্পনা অনুযায়ী যৌন বিষয়ক ধারণা ও অবস্থান সম্পর্কে নতুন কিছু ধারণা পেয়ে থাকে যা তাকে ও তার সঙ্গীকে উপকার করে থাকে। এখন এটা ক্ষেত্রবিশেষ হতে পারে। তবে এই সামান্য উপকারিতা পর্ণগ্রাফির ভয়াবহতা ও আসক্তির কুফলকে ঢাকবার(sugarcoat) জন্য যথেষ্ট নয়। এবং পর্ণগ্রাফি আসক্তি যে অনেকটা ড্রাগের মতো ব্রেনে প্রভাব ফেলে সেই ব্যাপারটাও বিবেচ্য বিষয়। 

এছাড়াও অনেকের sex drive বা যৌন চাহিদা জন্মগতভাবে বেশি থাকে। তারা পর্ণ দেখলে খুব সহজেই পর্ণ দেখাতে আসক্ত হয়ে যেতে পারে। compulsiveness বা ছটফট করা তাদের মধ্যে ভয়াবহ আকারে কাজ করে থাকে।

আবার যাদের sex drive কম থাকে তাদের ক্ষেত্রে পর্ণগ্রাফি libido বা sex drive বৃদ্ধি করতে পারে যা ভালো। এখন নির্দিষ্ট কিছু ক্ষেত্রে তা ভালো হতে পারে। গুগলে পর্ণের উপকারিতার কথা জানতে চাইলে এটা পেয়ে যাবেন। তবে পরবর্তীতে কি হতে পারে তা সাধারণত গুগল জানায় না।

এখন এই বিষয়টা control এ থাকতে হবে। অধিকাংশ ক্ষেত্রে porn দেখে sex drive অতিমাত্রায় বৃদ্ধি পেতে পারে এবং ঐ অতিমাত্রায় অবাস্তব যৌনচাহিদা যখন নিজের সঙ্গীর সাথে মেটাতে যাবেন তখনই মূলত যৌন সম্পর্কে ফাটল ধরে। 

এখন স্ত্রী যদি Nymphomaniac(যার যৌন চাহিদা অতিরিক্ত) হয় বা স্বামীর যদি অতিরিক্ত sex drive থাকে তাহলে সমস্যা হয় না। তবে বাস্তবতা হচ্ছে এমন সাধারণত হয়ে থাকে না।  

অর্থাৎ পর্ণ দেখার যে উপকারিতার কথা বলা হয়ে থাকে তা ক্ষেত্রবিশেষ থাকলেও ভবিষ্যতে দীর্ঘ সময়ের কথা চিন্তা করলে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই ক্ষতি করে। 

আবার অনেকে বলে পর্ণ দেখার মাধ্যমে ২-১টা নতুন কিছু শেখা যায়। তা অবশ্য মিথ্যা নয়। তবে ঐ সামান্য sex knowledge অর্জন করতে গিয়ে জীবনের ভয়াবহ ক্ষতি সাধন হয়ে যেতে পারে।


পর্ণআসক্তির উপকারিতা(benefits of pornography addiction in bangla)

এতো কিছু ব্যাখ্যার পর বলা যায় যে পর্ণগ্রাফির মূল ভয়াবহতা হচ্ছে তা আসক্ত হওয়া তাই এটা ignore করা ভালো। পর্ণ আসক্তির কোনো উপকারিতা নেই বরং এটার অপকারিতা ভয়াবহ। 

স্ট্রেস, বিষণ্নতা, দৈনন্দিন জীবনে বাধাগ্রস্ততা, সম্পর্কে ভাঙন হওয়া ইত্যাদি


সারাংশ 

পর্ণগ্রাফিতে আসক্ত(porn addiction)  হওয়ার ভয়াবহতা সম্পর্কে সন্দেহ নেই তবে আসক্ত না হয়ে দেখলে এর কিছু উপকারিতা আছে যতক্ষণ পর্যন্ত আপনি বুঝতে পারেন যে পর্ণটা আসলে অভিনয়, বাস্তবতার সাথে এর সম্পর্ক নেই

 মানে আপনার sex drive যাতে অবাস্তবিক পর্যায়ে চলে না যায় এবং আপনি যাতে বাস্তবে জীবনে করার চিন্তা না করেন। তার সাথে সাথে চিন্তা ও নিজের ওপর রাগ হলে হবে না। তখন মূলত পর্ণগ্রাফির উপকারিতা হয়তো আছে। 


এখন বাস্তবতা হচ্ছে আপনি porn দেখবেন এবং তা নিয়ন্ত্রণ করবেন, এটার আসলে সম্ভাবনা খুবই কম। পর্ণ দেখার সাথে মাস্টারবেশন বা আপনার যৌনতা সম্পর্কিত যা একজন স্বাভাবিক নারী/পুরুষের ক্ষেত্রে নিয়ন্ত্রণ করা সহজ নয়। তাই সম্ভাবনা অত্যন্ত বেশি যে আপনি আসক্ত হবেন। তাই পর্ণগ্রাফির যতো উপকারিতার কথা বলা হোক না কেন এটা ignore করাই উচিত। 

এখন বলে রাখা প্রয়োজন পর্ণগ্রাফি দেখার সাথে মাস্টারবেশন কে গুলিয়ে ফেলবেন না। পর্ণগ্রাফির সাথে মাস্টারবেশন সম্পর্কিত হলেও পর্ণ দেখা ও মাস্টারবেশন করা প্রকৃতপক্ষে এক নয়। পর্ণ না দেখেও অনেকে মাস্টারবেশন করে। নির্দিষ্ট পরিমাণ মাস্টারবেশন scientifically ক্ষতি করে না তবে বেশি মাস্টারবেশন করা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর আবার। 

পর্ণগ্রাফি না দেখলে আপনার যৌন বা মানসিক স্বাস্থ্যের কোনো ক্ষতি নেই এবং তেমন কোনো উপকার নেই। বরং পর্ণ দেখলে আপনার যে বিরাট আসক্তিতে পড়ার ক্ষতির সম্ভাবনা থাকে সেটা চিন্তা করে অবশ্যই পর্ণ ত্যাগ করা উচিত। পর্ণগ্রাফি থেকে মুক্ত পেতে হবে মুক্ত পাওয়ার জন্য মানসিক স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ এর পরামর্শ নিতে পারেন। 

গুগলে সার্চ দিলে কিছু উপকারিতা জানতে পাবেন তবে তার সাথে অপকারিতার কথা বলা হয় না। 

এবং গুগলে সবসময়ই বলা হয় যে "সাহায্য করতে পারে,পর্ণের উপকারিতা থাকতে পারে, it can improve your health, it can improve relationship ". অর্থাৎ বলা হচ্ছে উপকার করতে পারে(Can শব্দটার ব্যবহার হয়)। 

অর্থাৎ ব্যক্তিভেদে ক্ষেত্রবিশেষ উপকার হতে পারে, তবে তা সবার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়। এবং যা উপকার করে তা আরো সুস্থ উপায়ে পাওয়া সম্ভব। এবং যা ক্ষতি করে ও ক্ষতির সম্ভাবনার প্রকাশ ঘটায় তার ক্ষতিপূরণ করা অত্যন্ত কঠিন। 

আর সাথে সবসময় হতাশা, নিজের ওপর রাগ হওয়া guilty অনুভব করা তা তো আছেই।  মস্তিষ্কের নিউরোক্যামিকেলের পরিবর্তন ও ফ্রন্টাল লোব deactivate হওয়াটা, কিছুটা হি:স্র হওয়া, নারীদের পণ্য হিসেবে দেখা এসব অপকারিতা তো না বললেই নয়।

আরো পড়ুন-

আপনি কেন পর্ণ ছাড়তে পারছেন না

পর্ণগ্রাফি থেকে মুক্ত হতে কত সময় লাগে

পর্ণ দেখা ছেড়ে দিলে কি হয়


Post a Comment

0 Comments